খবরের জন্য

যোগাযোগ: 8016367537 / 8648868278


Email ID: zillarbarta19@gmail.com


Registration No: WB-18-0064025

বিজ্ঞাপনের জন্য

যোগাযোগ: 9153043352 / 7478809472


জয়ী কেরালা।আটকে ত্রিপুরা

  • মাঠে ময়দানে | Nov 30, 2023

নিজস্ব প্রতিনিধি, জেলার বার্তার ডেস্ক- সেই ব্যাটিং ব্যর্থতা। তাতেই পরাজিত ত্রিপুরা। কেরালকে অল্প রানে আটকে দেওয়ার পরও। জয়ের হ্যাটট্রিক করতে পারলেন না মণিশঙ্কর মুড়াসিং-রা। বিজয় হাজারে ট্রফি ক্রিকেটে। ব্যাঙ্গালুরুর আলোর ক্রিকেট আকাদেমি মাঠে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ত্রিপুরা পরাজিত হলো ১১৯ রানে।
কেরালার গড়া ২৩১ রানের জবাবে ত্রিপুরা মাত্র ১১২ রান করতে সক্ষম হয়। রাজ্যদলের পক্ষে একমাত্র রজত দে ছাড়া কোনও ব্যাটসম্যানই ২২ গজে টিকে থাকতে পারেননি। পর পর তিন ম্যাচে চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ার পরও কেনও প্রথম একাদশে পল্লব দে-কে রাখা হলো তা বোঝা গেলো না। এছাড়া দলনায়ক ঋদ্ধিমান সাহা-কে অতিতের ছায়া মনে হচ্ছে।

 

      

 

টি-২০ পর এই আসরেও ব্যাট হাতে রান নেই ঋদ্ধিমানের। আসরে ৪ ম্যাচ খেলে ২ টি ম্যাচে জয় পেয়ে ত্রিপুরার পয়েন্ট ৮। ১ ডিসেম্বর ত্রিপুরার পঞ্চম প্রতিপক্ষ রেলওয়ে। সকালে টসে জয়লাভ করে কেরালার অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন প্রথমে ব্যাট নেয়।

দলের দুই ওপেনার মহম্মদ আজারুদ্দিন এবং রোহন কুন্নোমল শুরুটা দুরন্ত করেন। ওপেনিং জুটিতে ১২২ বল খেলে ৯৫ রান যোগ করে দলকে বড় স্কোর গড়ার ইঙ্গিত দেন। আজারুদ্দিন ৬১ বল খেলে ৭ টি বাউন্ডারি ও ১ টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৫৮ এবং রোহন ৭০ বল খেলে ৬ টি বাউন্ডারি ও ১ টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৪ রান করে আউট হতেই কেরালা শিবিরে কালো ছায়া নেমে আসে। ত্রিপুরার বোলারদের দাপটে তখন বেকায়দায় কেরালা শিবির।

শেষ পর্যন্ত ৪৭.১ ওভার ব্যাট করে সবকটি উইকেট হারিয়ে কেরালা ২৩১ রান করতে সক্ষম হয়। দলের পক্ষে শ্রেয়স গোপাল ৩৮ বল খেলে ২ টি বাউন্ডারি ও ৩ টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪১,বাসিল টিম্পি ২২ বল খেলে ১ টি বাউন্ডারি ও ২ টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ২৩ এবং অখিল স্কেরিয়া ৪০ বল খেলে ৩ টি বাউন্ডারির সাহায্যে ২২ রান করেন। ত্রিপুরার পক্ষে অভিজিত্ সরকার ৩৩ রান দিয়ে এবং বিক্রম দেবনাথ ৪১ রান দিয়ে ৩ টি করে উইকেট দখল করেন। জবাবে খেলতে নেমে শুরু থেকেই ক্রমাগত উইকেট হারাতে থাকে ত্রিপুরা।


দলের দুই ওপেনার মহম্মদ আজারুদ্দিন এবং রোহন কুন্নোমল শুরুটা দুরন্ত করেন। ওপেনিং জুটিতে ১২২ বল খেলে ৯৫ রান যোগ করে দলকে বড় স্কোর গড়ার ইঙ্গিত দেন। আজারুদ্দিন ৬১ বল খেলে ৭ টি